বন্ধুর হাতেই মৃত্যু আরেক বন্ধুর

বন্ধুর হাতেই মৃত্যু আরেক বন্ধুর:- বাংলাদেশের নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জ উপজেলায় সামান্য কিছু ঘটনার কারণে জাহিদুল ইসলাম রিয়াজ নামে এক ২০ বৎসরের যুবককে চুরি দিয়ে কুপিয়ে খুন করার ঘটনা সামনে এসেছে। জানা গেছে এই ঘটনায় মনির হোসেন নামে আরও একজন ১৮ বছর বয়সী যুবক আহত হয়েছেন। এই ঘটনাটি ঘটিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় এলাকার সাধারণ মানুষ ঘটনাস্থল থেকে অভিযুক্ত আলাবক্স ব্যাপারী বাড়ির মহিউদ্দিনের ছেলে মো. রিয়াজকে ধরে পুলিশ অধিকর্তার হাতে তুলে দেন। এই অভিযুক্ত কিশোরটির বয়স ২০ বৎসর।

google news

বন্ধুর হাতেই মৃত্যু আরেক বন্ধুর

গতকাল অর্থাৎ ১৮ জুন মঙ্গলবার রাত্রি ৮ টা নাগাদ বেগমগঞ্জ উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের কামলার টেক বাজারের হাশেমের দোকানের সামনে এই নিস্রংস ধটনাটি দেখতে পাওয়া যায়। এই ঘটনায় যেই বালকটি মারা যায়, তিনি বেগমগঞ্জ উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম কুতুবপুর গ্রামের ওয়ারিশ হাজি বাড়ির হারুনুর রশীদ কালামিয়ার ছেলে। এই বালকটি ঢাকার একটি ব্যাগ তৈরির কারখানায় চাকরি করত।

বন্ধুর হাতেই মৃত্যু আরেক বন্ধুর

আমাদের নেওয়া এক সাক্ষাৎকারে, লোকাল মানুষজন ও পুলিশ, মৃত জাহিদুল ও অভিযুক্ত রিয়াজ দুজনেই প্রতিবেশী এবং সবসময় তাদের একসঙ্গে ঘুরতে দেখা যেত। তারা একসাথেই খেলাধুলা করত। তবে ঘটনা ঘটার ৪ থেকে ৫ দিন আগে তাদের দুইজনের মধ্যে খেলাধুলা নিয়ে খুব কথা কাটাকাটি হয়েছিল বলে জানা যাচ্ছে।

প্রত্যেকদিন সন্ধ্যার মতো ওই দিনও জাহিদুল তার কয়েকজন বন্ধুবান্ধবের সাথে সন্ধ্যা বেলা এলাকার কামলার টেক বাজারের হাশেমের চায়ের দোকানে আড্ডা দিচ্ছিল। ঠিক ওই সময়ই রিয়াজ তার কয়েকজন সাঙ্গপাঙ্গ নিয়ে জাহিদুলের ওপর হামলা চালায়। আর এই ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে রিয়াজ জাহিদুলের বুকে ছুরি চালিয়ে দেয়, সাথে সাথেই ঘটনাস্থলে জাহিদুলের মৃত্যু ঘটে।

এই ধস্তাধস্তির সময় জাহিদুলের বন্ধু মনির জাহিদুলকে বাঁচাতে এগিয়ে এলে তাকেও বেশ মারধর করা হয়। ঘটনার পরে এলাকাবাসী তাদের নিয়ে বেগমগঞ্জ উপজেলার একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে পচানোর সাথে সাথেই চিকিৎসক জাহিদুলকে মৃত বলে ঘোষণা করেন এবং বন্ধু মনির আহত অবস্থ্যায় ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের সার্জিক্যাল ওয়ার্ডে ভর্তি রয়েছেন।

পুলিশ অধিকর্তার বক্তব্য

বর্তমান বেগমগঞ্জ মডেল থানার ওসি মো. আনোয়ারুল ইসলাম আমাদের জানিয়েছেন, যে তারা দুইজন একে ওপরের খুব ভালো বন্ধু ছিল। তাদের দুই জনের বাড়িও ছিল কাছাকাছি। ছোটবেলা থেকেই তারা একসাথে খেলাধুলা করে বড়ো হয়েছে। কিন্তু জানা যায়, মৃত জাহিদুল নাকি অভিযুক্ত রিয়াজ এর নাম ধরে ডাকে। আর তখনি রিয়াজ বলে ওঠে, আমি তোর থেকে বয়সে ছোটো নাকি, যে তুই আমার নাম ধরে ডাকছিস। ব্যাস এই নিয়ে দুই বন্ধুর মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয় ও এক পর্যায় গিয়ে এই ঘটনা জাহিদুলের মৃত্যু পর্যন্ত ঘটিয়ে দেয়।

পুলিশ অধিকর্তা আরও জানান, মৃত দেহটিকে ইতিমধ্যেই ময়নাতদন্তের জন্য ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে এবং এলাকাবাসীর সহযোগিতায় একজনকে আটকও করা হয়েছে। এবার লিখিত অভিযোগকে সামনে রেখে প্রশাসন আইনগত ব্যাবস্থা নেবে অভিযুক্তের ওপর।

শেষ কথা

সকলকে অশেষ ধন্যবাদ,আমাদের প্রতিবেদনটি শেষ পর্যন্ত পড়ার জন্য। আমাদের এই সাইটে আমরা প্রতিনিয়ত নতুন ফোনের আপডেট, নতুন গাড়ির আপডেট,সরকারি নিয়োগ ও প্রকল্প এবং বিভিন্ন বস্তুর বর্তমানে সঠিক দাম কত চলছে সেই সম্পর্কে আপডেট দিয়ে থাকি। আপনি যদি নতুন ফোনের আপডেট, নতুন গাড়ির আপডেট, সরকারি নিয়োগ ও প্রকল্প এবং বিভিন্ন বস্তুর বর্তমানে সঠিক দাম কত চলছে এই সম্পর্কে আপডেটেড থাকতে চান তাহলে আমাদের ওয়েবসাইটটি ভিসিট করতে পারেন।

এছাড়াও, বন্ধুর হাতেই মৃত্যু আরেক বন্ধুর এই সম্পর্কে সঠিক তথ্য পেয়ে থাকেন তাহলে আমাদের এই পোস্টটি আপনার চেনা মানুষদের সাথে শেয়ার করে দেবেন ও এই পোস্টটি সম্পর্কে বা আমাদের ওয়েবসাইট সম্পর্কে আপনার যদি কিছু বলার থাকে তাহলে আপনি তা কমেন্ট করে জানাতে পারেন। আমরা আপনার সমস্ত কমেন্টের গুরুত্ব সমানভাবে দেব।

Source

Hello friends I'm Subham Manna. I'm a Tech expert and i love research and write on Mobile & Tech. I have 5 years exprience on blogging. This is my personal website, here i post daily new mobiles & Tech update.

Leave a Comment